Home সারাদেশ কাহালুর যোগাযোগের গুরুত্বর্পূণ রাস্তাঘাট বর্ষায় এখন মৃত্যুর পথ

কাহালুর যোগাযোগের গুরুত্বর্পূণ রাস্তাঘাট বর্ষায় এখন মৃত্যুর পথ

251
0
SHARE
Print Friendly, PDF & Email

pic - 01.10.17মোঃ ফাহিম আহম্মেদ রিয়াদ – কাহালু (বগুড়া)ঃ কাহালুতে যোগাযোগের গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাগুলির এমনিতেই বেহাল দশা। তার উপর একটু বৃস্টি হলে চলাফেরা দূর্র্বিসহ হয়ে পরে। আর এ বৃস্টি যদি কিছুক্ষন স্থায়ী হয় তাহলে তো কথাই নেই, রাস্তার যেন মৃর্ত্যু ঘটে। কাহালু উপজেলার অধিকাংশ সড়কের বেহলা দশায় বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ দীর্ঘ সময়ের বিরম্বনায় আর সীমাহীন দূর্ভোগে পড়ছেন। বিভিন্ন পত্রিকায় এই সড়ক গুলোর চিত্র বার বার প্রকাশ হলেও সংস্কারের জন্য নেওয়া হচ্ছেনা কোন উদ্যোগ। উপজেলাবাসীর দীঘদিনের এই সমস্যা জটিল থেকে আরো জটিলতার সৃষ্টি করলেও তার সমাধান কোনোভাবেই পাওয়া যাচ্ছেনা। কোনো কোনো সড়কের সংস্কার ও কার্পেটিং কাজ হলেও সেগুলোও বছর না ঘুরতেই আবারও যানবাহন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। আর যে, সড়ক গুলো দীর্ঘদিন যাবত সংস্কার বা কার্পেটিং করা হয়নি সেগুলো খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। কোনো কোনো রাস্তায় প্রতিনিয়ত ট্রাকসহ অন্যান্য যানবাহন উল্টে যাওয়াসহ দুর্ঘটনা সব সময় ঘটছে। বছর না ঘুরতে রাস্তার বেহাল দশার বিষয়ে নানা মন্তব্য পাওয়া গেছে। স্থানীয় মটর শ্রমিক, ঠিকাদার, প্রকৌশলী ও সাধারন মানুষের মতে অত্র উপজেলার উপর দিয়ে যাওয়া বগুড়া-নওগাঁ সড়ক বাদে কোনো সড়কেরই মজবুত কোনো কার্পেটিং কাজ হয় না। অত্র উপজেলায় যেভাবে যেখানে সেখানে অপরিকল্পিতভাবে শিল্প প্রতিষ্ঠান, মিল কারখানা, বসত-বাড়ি ও স্থাপনা নির্মাণ করা হয়েছে তাতে সকল শ্রেণীপেশার মানুষই জটিল থেকে আরো জটিল সমস্যার মধ্যে পড়বে। রাস্তার পার্শ্বে অনেক জায়গায় ছোট-খাটো বাজার গড়ে উঠলে সেখানে পানি নিস্কাশ্বনের জন্য নেই ড্রেন। বিভিন্ন সড়কের ও রেল লাইনের দু-ধার দিয়ে যে, সকল নয়নজুলি আছে সেগুলো যে, যার মতো করে অবৈধভাবে দখল করে নিয়েছে। এমনকি বড় বড় শিল্প প্রতিষ্ঠান ও মিল কারখানা যারা প্রতিষ্ঠা করেছেন তারাও ঠিকমত পানি নিস্কাশ্বনের ড্রেন নির্মান করেনি। যার ফলে বর্ষা মৌসুমে রাস্তার উপর পানি জমে থাকায় দ্রুত নষ্ট হয়ে যাচ্ছে রাস্তা। কাহালু উপজেলার বিভিন্ন স্থানে যেভাবে শিল্প প্রতিষ্ঠান ও মিল কারখানা গড়ে উঠেছে সেই তুলনায় নির্মাণ করা হয়নি ভালো কোনো রাস্তা।  শিল্প প্রতিষ্ঠান ও মিল কারখানার মালামাল বহনের জন্য ছোট ছোট রাস্তায় চলাচল করে বড় বড় পরিবহন। আর ধারন ক্ষমতার চেয়ে অধিক ওজনের পরিবহন ছোট রাস্তাগুলো দিয়ে চলাচলের কারনে দ্রুত নষ্ট হয় রাস্তা গুলো। এমনিতেই রাস্তার বেহাল দশা তার উপর মাল বোঝাই পরিবহন চলাচলের কারনে প্রতিদিনই রাস্তাগুলোতে সৃষ্টি হচ্ছে যানজটের। উপজেলার উল্লেখযোগ্য কাহালু-দরগাহাট সড়ক, কাহালু-বগুড়া সড়ক, দরগাহাট-আড়োলা সড়ক, বারমাইল-নামুজা সড়ক, তালোড়া-দেওগ্রাম সড়কসহ বেশ কয়েকটি সড়ক সরোজমিনে গিয়ে দেখা গেছে এই সড়ক গুলো দিয়ে যানবাহন চলে কিভাবে। এই সড়ক গুলোর খুবই খারাপ অবস্থা হওয়ায় যানবাহন চলাচল করছে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায়। এদিকে অত্র উপজেলার মানুষের বগুড়ায় জরুরী ভিত্তিতে যাওয়ার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ তালোড়া থেকে রেল লাইনের দক্ষিন পাশ দিয়ে বগুড়া পর্যন্ত সড়কটি। এক বছরই হয়নি কাহালু থেকে বগুড়া রেলগেট পর্যন্ত সড়কটি বর্ধিত করাসহ নতুন করে কার্পেটি করা হয়। কিন্তু বছর না ঘুরতেই রাস্তার বেহাল দশা। দ্রুত রাস্তাটি নষ্ট হওয়ার পিছনে কাহালুর শীতলাই এলাকায় গড়ে উঠা পেপার মিল ও ফিড মিল। প্রতিদিন এই মিলের মালামাল বহনের জন্য বড় বড় ট্রাক চলাচল করে এই রাস্তায়। যারফলে দ্রুত রাস্তাটি নষ্ট হয়ে যায়। মুলত রাস্তাগুলোর বেহাল দশা ও ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় প্রতিদিন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সীমাহীন দূর্ভোগের মধ্যে দিয়ে যাতায়াত করছে বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ। প্রতিদিন তারা দীর্ঘ সময়ের বিরম্বনায় পড়ছেন। অনেকের মতে উল্লেখিত রাস্তা গুলোর বর্ধিত করাসহ মজবুত করে কার্পেটি করা এবং প্রয়োজন মাফিক ড্রেন নির্মাণ করা না হলে মানুষ জটিল থেকে বড় ধরনের জটিল সমস্যায় পড়বেন।। ভ্রুক্ষেপ নেই কোন জনপ্রতিনিধিদের। কাহালু পৌর এলাকার সৌর্ন্দয বৃদ্ধির জন্য উপজেলার সামনে, রেলওয়ে বটতলায়, কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ সহ পৌর এলাকার বিভিন্ন পয়েন্টে প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত অর্থায়ন বা অনুদানে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে প্রায় ১ কোটির অধিক টাকা ব্যয় করলে ও তা পরিকল্পনা মাফিক না হওয়ায় পানি নিস্কাশনের কোন ব্যবস্থা নেই। তাই সামান্যতম বর্ষায়  পৌর এলাকার চারদিকে তাকালে পৌরসভা ভাবতে কস্ট হয়। মনের আবেগে যেন নিজ থেকে উচ্চারিত হয় “এ যেন পৌরসভা নয় পৌরডোবা”। কাহালুর যোগাযোগের মূল রাস্তা হল কাহালু-মালঞ্চা, কাহালুÑদর্গাহাট এবং কাহালুÑবগুড়া। কাহালু হতে বগুড়া যাওয়ার বাইপাস সড়কের বিভিন্ন জায়গা ভেঙ্গে গিয়েছে। অচিরই চলাচলের অযোগ্য হয়ে পরবে। বিচ্ছিন্ন হবে যোগাযোগ ব্যবস্থা। কাহালুÑটু দর্গাহাট সড়কে সাড়াই বাজারের কাছাকাছি এবং দর্গাহাট সংলগ্ন প্রায় ১কিঃমিঃ সড়ক চলাচলের অযোগ্য হয়ে পরেছে। কাহালু-মালঞ্চা সড়কের পৌর এলাকায় গোয়ালপুকুর নামক স্থানে প্রায় সড়কের অবস্থা নাজেহাল। এ ছাড়া কাহালু স্টেশন হতে হাইস্কুল সংলগ্ন রাস্তার অবস্থা অত্যান্ত খারাপ। ছাত্র/ছাত্রী ও অন্যান্য যাত্রীর চলা চলের জন্য যথেস্ট র্দূভোগ পোয়াতে হচ্ছে। বৃস্টি হলেই হাটু পর্যন্ত পানি জমে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম হচ্ছে।