Home খেলাধুলা বাংলাদেশ সিরিজ দিয়েই ক্রিকেটে চালু হচ্ছে ‘লালকার্ড’

বাংলাদেশ সিরিজ দিয়েই ক্রিকেটে চালু হচ্ছে ‘লালকার্ড’

206
0
SHARE
Print Friendly, PDF & Email
image-100662-1505454527অনলাইন ডেস্ক: দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে শুরু হতে যাওয়া বাংলাদেশ সিরিজে নতুন নিয়মের সঙ্গে পরিচিত হতে যাচ্ছে ক্রিকেট। আর সেটি হচ্ছে ফুটবল খেলার মত ‘লালকার্ড’ সিস্টেম। গুরুত্বর অসদাচরণের কারণে কোনো ক্রিকেটারকে আম্পায়ার মাঠ থেকে বের করে দিতে পারবেন। জানা গেছে, ‘কোড অব কন্ডাক্টে’ পরিবর্তন এনেছে আইসিসি। আগামী ১ অক্টোবর থেকে চালু হওয়ার কথা থাকলেও বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্ট সিরিজের ক্ষেত্রে তিন দিন আগেই চালু হয়ে যাচ্ছে নতুন নিয়ম। এর ফলে গুরুতর অসদাচরণের জন্য আম্পায়ার ক্রিকেটারদের মাঠ থেকে বের করে দিতে পারবেন। ক্রিকেট মাঠে আগ্রাসী আচরণ থামাতেও আম্পায়ারদের হাতে এমন ক্ষমতা তুলে দিচ্ছে আইসিসি।

ফলে ‘লাল কার্ড’ দৃশ্যমান না হলেও আচরণের মাত্রা ছাড়ালেই ফুটবলের মতোই মাঠ ছেড়ে ড্রেসিংরুমে আশ্রয় নিতে হবে ক্রিকেটারদের। ‘লেভেল তিন’ হলে সেটা নির্দিষ্ট কিছু ওভারের জন্য। আর যদি অপরাধের মাত্রা ‘লেভেল চারে’র হয়, সে ক্ষেত্রে ম্যাচের বাকি সময়ের জন্য নিষিদ্ধ হবেন। ব্যাটসম্যানের ক্ষেত্রে তাঁর নামের পাশে ‘রিটায়ার্ড আউট’ লেখা হবে। ‘লাল কার্ডে’র পাশাপাশি ডিআরএসেও পরিবর্তন আসবে। এত দিন পর্যন্ত ডিআরএসের সিদ্ধান্ত বিপক্ষে গেলে দলের কোটা থেকে একটি বাদ চলে যেত। এখন থেকে ডিআরএসের সিদ্ধান্ত বিপক্ষে গেলেও সেটি যদি ‘আম্পায়ার্স কল’ হয়, তাহলে রিভিউয়ের কোটা কমবে না। তবে টেস্টে ৮০ ওভারের পর ডিআরএসের কোটা নতুন করে শুরু হওয়ার ব্যাপারটি বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইসিসি। আইসিসির এই সভায় ক্রিকেট ব্যাটের মাপ নিয়েও আলোচনা হয়েছে। হালের ক্রিকেটাররা ব্যাটের ধার মোটা করে রাখেন বলে অভিযোগ অনেক দিনের। ধার মোটা করে রাখলে বড় শট খেলতে সুবিধা হয়। আইসিসির ক্রিকেট কমিটি ব্যাপারটি বন্ধ করে ব্যাটের মাপ নির্দিষ্ট করে দেওয়ার সুপারিশ করেছে। এখন থেকে সর্বোচ্চ ১০৮ মিলিমিটার প্রশস্ত ব্যাট ব্যবহার করা যাবে। আর ব্যাটের সর্বোচ্চ পুরুত্ব হবে ৬৭ মিমি এবং পাশে সেটা ৪০ মিমির বেশি হবে না। তবে ব্যাটসম্যানরা অন্তত একটি বিষয়ে শান্তি পাবেন এখন। পপিং ক্রিজ ক্রস করার পর ব্যাট বা পা মাটি থেকে ওপরে উঠলেও এখন আর আউট হবে না ব্যাটসম্যানরা। বর্তমানে দাগ পার হলেও যদি স্ট্যাম্প ভাঙার সময় ব্যাটসম্যানের পা কিংবা ব্যাট মাটিতে না থাকে, তবে আউট বলে বিবেচিত হন।