মুখের দুর্গন্ধ তাড়াতে হার্বাল মাউথওয়াশ

46
15th-august
Print Friendly
image-99767-1505021805অনলাইন ডেস্ক: মুখ থেকে দুর্গন্ধ বেরোচ্ছে এমন কথা শুনতে কারোরই ভালো লাগে না। সাধারণত অনেকক্ষণ কোন কথা না বললে কিংবা কিছু না খেলে মুখে দুর্গন্ধ হতে পারে। আবার কখনও রোগের কারণেও মুখ থেকে দুর্গন্ধ ছড়াতে পারে। এই দুর্গন্ধ মানুষকে সবসময়ই বিব্রতকর অবস্থায় ফেলে দেয়। তাহলে উপায়? অনেকেই আছেন, যারা দুর্গন্ধ তাড়াতে বাজারের চলতি মাউথওয়াশ ব্যবহার করে থাকেন। এতে সমস্যা কিন্তু আরও বাড়ে। এসব মাউথওয়াশে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই অ্যালকোহল ব্যবহার করা হয়। আর এমন জিনিস দীর্ঘদিন ব্যবহারে দাঁত খারাপ হতে বাধ্য। তাই দাঁতের সুরক্ষায় বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন মিন্ট হার্বাল মাউথওয়াশ। এতে কোন ক্ষতিকর কেমিক্যাল না থাকায় তা দাঁতের সুরক্ষায় ভালো কাজ করবে। আবার দুর্গন্ধ থেকেও মুক্তি মিলবে।
 
উপকরণ
 
মিন্ট হার্বাল মাউথওয়াশ বানাতে প্রয়োজন পড়বে লবঙ্গের পাউডার, পিপারমেন্ট অয়েল এবং অ্যাপেল সিডার ভিনিগার।
 
কার কী কাজ?
 
লবঙ্গে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিসেপটিক, অ্যান্টিমাইক্রাবিয়াল এবং অ্যান্টিভাইরাল প্রপাটিজ রয়েছে। এই উপাদানগুলো মুখে ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ কমাতে সাহায্য করে। এছাড়া পিপারমেন্ট তেলে উপস্থিত মেন্থল সারাদিন মুখে গন্ধ হতে দেয় না। আর অ্যাপেল সিডার ভিনিগারে অসেটিক অ্যাসিড এবং মেলিক অ্যাসিড থাকায় তা ব্যাকটেরিয়া মারতে সাহায্য করে।
 
মিন্ট হার্বাল মাউথওয়াশ বানানোর পদ্ধতি-
 
ধাপ ১:
 
প্রথমে একটি পাত্রে এক কাপ পানি নিন। চাইলে গরম পানিও ব্যবহার করতে পারেন। এক্ষেত্রে যতক্ষণ না পানি ঠাণ্ডা হচ্ছে, ততক্ষণ এতে অন্য কোন উপাদান মেশানো থেকে বিরত থাকুন।
 
ধাপ ২:
 
এবার এই পানিতে আধা কাপ অ্যাপেল সিডার ভিনিগার মেশান। এই ভিনিগারে অ্যাসিডিক উপাদান থাকায় এটি শুধু ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়াকেই মারে না, সেই সঙ্গে দাঁতের মধ্যে জমে থাকা বর্জ্যকেও দূর করে।
 
ধাপ ৩:
 
তিন-চারটি লবঙ্গ নিয়ে ভালো করে সেগুলি গুঁড়ো করে নিন। তারপর এক চা চামচ লবঙ্গ গুড়ো ভিনিগারের সঙ্গে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। চাইলে লবঙ্গ পাইডারের পরিবর্তে টি ট্রি তেলও ব্যবহার করতে পারেন।
 
ধাপ ৪:
 
এবার এই মিশ্রণে পাঁচ ড্রপ পিরাপমেন্ট তেল মেশান। সারাদিন মুখের থেকে যাতে কোন বাজে গন্ধ না আসে সেদিকে খেয়াল রাখে এই তেল।
 
ধাপ ৫:
 
চাইলে এই মিশ্রণে কয়েক ফোঁটা লেবুর রসও মেশাতে পারেন। লেবুতে সাইট্রিক অ্যাসিড থাকায় এটি দাঁতের দাগ দূর করতে দারুণ কাজে আসে।
 
ধাপ ৬:
 
এবার পাত্রের ঢাকনা ভালো করে বন্ধ করে দিয়ে তা ঠাণ্ডা জায়গায় রাখুন। এক সপ্তাহ পরে সুতির কাপড় দিয়ে মিশ্রণটি ভালো করে ছেঁকে নিন। ব্যস, এবার তৈরি আপনার হার্বাল মাউথওয়াশ।
 
ধাপ ৭:
 
মাউথওয়াশটি ব্যবহারের আগে সেটি ভালো করে ঝাঁকিয়ে নিন। তারপর একমুখ সেই মাউথওয়াশ নিয়ে, এক-দু মিনিট ভালো করে কুলকুচি করে ফেলে দিন।
 
ধাপ ৮:
 
মাউথওয়াশ ব্যবহারের পর ভুলেও মুখ ধোবেন না যেন! প্রসঙ্গত, কুলি করার সময় মিশ্রণটি গিলে ফেলবেন না। আর যদি কোন সময় ভুলবশত এমনটা হয়ে যায় তাহলে পরিমাণ মতো পানি পান করুন।
 
সতর্কতা
 
মিন্ট হার্বাল মাউথওয়াশ একসঙ্গে অনেকটা তৈরি করবেন না। কারণ এই মাউথওয়াশ দীর্ঘদিন রেখে দিলে এর মান খারাপ হয়। আবার এতে ব্যবহৃত কোন উপাদান থেকে আপনার অ্যালার্জি হয় কিনা মাউথওয়াশ বানানোর আগে তাও জেনে নিন। নিয়মিত এই মাউথওয়াশ ব্যবহারে শুধু মুখের দুর্গন্ধ দূর হবে না, সেই সঙ্গে আপনার মুখের ভেতরের সার্বিক স্বাস্থ্যও ভালো থাকবে।
শেয়ার করুন ...Share on FacebookShare on VKShare on YummlyBuffer this pageShare on Google+Tweet about this on TwitterPin on PinterestShare on LinkedInShare on RedditPrint this pageEmail this to someone