Home জাতীয় রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীন-রাশিয়ার সমর্থনের আশা সেতুমন্ত্রীর

রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীন-রাশিয়ার সমর্থনের আশা সেতুমন্ত্রীর

116
0
SHARE
Print Friendly, PDF & Email

image-103006-1506577866নিজস্ব প্রতিবেদক: রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে চীন ও রাশিয়া বাংলাদেশকে সমর্থন দেবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। চীন-রাশিয়া সহানুভূতি দেখাচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, আজকের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে আশা করি চীন ও রাশিয়াও রোহিঙ্গাদের পক্ষে থাকবে। এটা গোটা বাঙালির মনের কথা।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে যুবলীগ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগ এই কর্মসূচির আয়োজন করে।  এ উপলক্ষে রক্তদান ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ মিয়ানমারের সহিংসতা নিয়ে আলোচনা করতে বৃহস্পতিবার বৈঠকে বসতে যাচ্ছে। নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য রাষ্ট্রের প্রতিনিধিরা রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরাসের বক্তব্য শুনবেন। নিউইয়র্ক সময় বৃহস্পতিবার দুপুরে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকে মিয়ানমারও বক্তব্য দিতে পারে। বাংলাদেশও মুক্ত বিতর্কে অংশ নেবে। জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে বাংলাদেশের প্রস্তাব পেশ করবেন। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে মিয়ানমারে সামরিক দমনপীড়নের কারণে প্রায় পৌনে পাঁচ লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করায় ব্রিটেন, ফ্রান্স, যুক্তরাষ্ট্র এবং অপর চারটি দেশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে নিরাপত্তা পরিষদ এ বৈঠকে করতে যাচ্ছে। ওবায়দুল কাদের বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে শেখ হাসিনা জাতিসংঘে যে পাঁচ দফা প্রস্তাব দিয়েছেন তা সারা বিশ্বে প্রশংসা পেয়েছে। জাতিসংঘ তা গ্রহণ করেছে। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা আজ বিশ্ব শান্তির অগ্রদূত। তিনি মিয়ানমারের নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে প্রমাণ দিয়েছেন তিনি বিশ্ব মানবতার বাতিঘর। লাইট হাউজ অব ওয়ার্ল্ড হিউম্যানিটি। সেতুমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজনীতিকের পথ অতিক্রম করে রাষ্ট্রনায়ক হয়েছেন। কারণ একজন রাজনীতিক একটি নির্বাচনের পর আরেকটি নির্বাচন নিয়ে চিন্তা করেন। আর একজন রাষ্ট্রনায়ক পরবর্তী জেনারেশন (প্রজন্ম) নিয়ে চিন্তা করেন। শেখ হাসিনা পরবর্তী জেনারেশন নিয়ে চিন্তা করেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের নেত্রী তাঁর জন্মদিনে কেক কেটে উৎসব না করতে নির্দেশ দিয়েছেন। উৎসবে যে অর্থ হবে তার সমপরিমাণ অর্থ আমরা রোহিঙ্গাদের সাহায্যে পাঠাবো। ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটের সভাপতিত্বে যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদসহ কেন্দ্রীয় ও মহানগরের নেতারা বক্তৃতা করেন।